You are currently viewing মুন্সিগঞ্জে জলিল জব্বার দারুসসুন্নাত আলিম মাদ্রাসায় GEEP এর সচেতনতামূলক কর্মসূচি, বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি এবং মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত।

মুন্সিগঞ্জে জলিল জব্বার দারুসসুন্নাত আলিম মাদ্রাসায় GEEP এর সচেতনতামূলক কর্মসূচি, বিনামূল্যে রক্তের গ্রুপ নির্ণয় কর্মসূচি এবং মাদ্রাসা প্রাঙ্গণে পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা অভিযান অনুষ্ঠিত।

“Travelettes Of Bangladesh-ভ্রমণকন্যা” কর্তৃক গৃহীত “Gender Equity and Empowerment Programme”-এর মুন্সিগঞ্জ জেলা ইউনিটের উদ্যোগে ২৮শে জুন, রোজঃ মঙ্গলবার, মুন্সিগঞ্জের সদর উপজেলায় “জলিল জব্বার দারুসসুন্নাত আলিম মাদ্রাসা”-এ প্রায় দুই শতাধিক শিক্ষার্থীদের উপস্থিতিতে “ট্যুরিজম ও পরিবেশ, মেয়েদের পিরিয়ড, বাংলাদেশ ও মুক্তিযুদ্ধ, বাল্যবিবাহ প্রতিরোধ, ভালো স্পর্শ খারাপ স্পর্শ, মাদক, নৈতিক শিক্ষা এবং সড়ক নিরাপত্তা” বিষয়ক জনসচেতনতামূলক কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হয়। অনুষ্ঠানে শিক্ষার্থীদের উদ্দেশ্যে গুরুত্বপূর্ণ বক্তব্য রাখেন সংগঠনের মুন্সিগঞ্জ জেলার স্বেচ্ছাসেবক শিহাব, সুইটি আক্তার, আয়েশা ইসলাম জারা, হাবিবা আক্তার, তাহসিন মির, মোঃ তানজির সায়হাম অনিক, ইরাম রওশন অর্ণা, আয়শা আক্তার আরিফা, সাজিদ হাসান সজীব এবং আরও অনেকে। অনুষ্ঠানটি সুন্দরভাবে আয়োজন ও পরিচালনার জন্য সর্বোচ্চ সহযোগিতা করেন “জলিল জব্বার দারুসসুন্নাত আলিম মাদ্রাসা”-এর সম্মানিত অধ্যক্ষ জনাব মোহাম্মদ বজলুর রহমান সহ প্রতিষ্ঠানের সকল শিক্ষক-শিক্ষিকাবৃন্দ।

 

“Travelettes Of Bangladesh-ভ্রমণকন্যা” একটি ভ্রমণ সংগঠন যা ভ্রমণের মাধ্যমে নারী ক্ষমতায়নের উদ্দেশ্যে বিভিন্ন কার্যক্রম পরিচালনা করে এবং সামাজিক সচেতনতা তৈরিতে কাজ করে। সংগঠনটির অন্যতম একটি প্রজেক্ট “নারীর চোখে বাংলাদেশ” ইতিপূর্বে বাংলাদেশের ৬৪ জেলার একটি করে স্কুলে মেয়েদের সাথে মুক্তিযুদ্ধ, বাংলাদেশ ও ভ্রমণ, বয়ঃসন্ধিকালীন স্বাস্থ্য সচেতনতা এবং আত্মরক্ষার কৌশল বিষয়ে ওয়ার্কশপের আয়োজন করে এসেছে। করোনা মহামারীকালীন সময় এই কার্যক্রম সাময়িক বন্ধ থাকার পর সংগঠনটি গত ১লা সেপ্টেম্বর ২০২১ইং তারিখে তাদের নতুন প্রজেক্ট “Gender Equity and Empowerment Programme”-এর কার্যক্রম শুরু করে। মাননীয় শিক্ষামন্ত্রী জনাব ডা. দীপু মনি এমপি মহোদয় এই কার্যক্রমটি উদ্বোধন করেন, যেখানে উপস্থিত ছিলেন মাউশি’র মহাপরিচালক মহোদয় এবং ৬৪ জেলার জেলা শিক্ষা অফিসারগণ। ” Gender Equity and Empowerment Programme” প্রজেক্টটির মূল লক্ষ্য হচ্ছে মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে
১. ট্যুরিজম ও পরিবেশ, ২. মেয়েদের মাসিক পিরিয়ড, ৩. বাংলাদেশ, ৪. ভালো স্পর্শ খারাপ স্পর্শ, ৫. মাদক, ৬. মুক্তিযুদ্ধ, ৭. সড়ক নিরাপত্তা, ৮. বাল্যবিবাহ ও ৯. নৈতিক শিক্ষা এই ৯টি গুরুত্বপূর্ণ বিষয়ে শিক্ষার্থীদের মধ্যে জনসচেতনতা সৃষ্টি।

This Post Has One Comment

Leave a Reply